একুশ শতক এর পরিক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে। ফেসবুকে লাইক দিয়ে আমাদের সাথেই থাকুন।

হাতিয়ায় সংখ্যালঘুর জমি দখলের অভিযোগ

ভূক্তভোগী সমীর চন্দ্র দাস ও তার স্ত্রী লাকি রানী দাস
ভূক্তভোগী সমীর চন্দ্র দাস ও তার স্ত্রী লাকি রানী দাস

নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলায় এক হিন্দু সংখ্যালঘু পরিবারের জমি দখলের অভিযোগ উঠেছে খোকন নামের এক স্থানীয় ভূমি দস্যুর বিরুদ্ধে। ভূক্তভোগী সমীর চন্দ্র দাস ন্যায় বিচার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ জানিয়েছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানাযায়, উপজেলার পশ্চিম সোনাদিয়ায় সমীর চন্দ্র দাশ ও খোকন উদ্দিন পাশাপাশি বসবাস করেন। ১০ বছর আগে সমীর চন্দ্র দাশ ৫৬ ডিং বাড়ির ভূমি এবং নাল ৩২ ডিং সাফ কবলা দিয়ে মেপে বুঝিয়ে দেন। কিন্তু সম্প্রতি বিক্রিত জমির বাহিরে সমীরের মালিকানাধীন অন্য ৩৮ ডিং খোকন উদ্দিন জোর পূর্বক দখল করে নেয়। সমীর ও তার স্ত্রী লাকি রানী দাস বাঁধা দেওয়ার চেষ্টা করলে, খোকন ও তার লাঠিয়াল বাহিনী ভূক্তভোগী পরিবারের উপর নির্যাতন চালায়। সমীর বিচারের দাবি নিয়ে এলাকার গণ্যমান্য মানুষের ধারে ধারে ঘুরলেও কোন বিচার পাননি। হাতিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ জানালে, থানার এসআই রিয়াজুল হাসান সরেজমিনে তদন্ত করে নিষ্পত্তির উদ্যোগ নেয়। খোকন পুলিশের নিষ্পত্তির উদ্যোগকে পাত্তা না দিয়ে আরো বেপরোয়া হয়ে উঠে। তাই এবার লিখিত ভাবে বিচারের দাবি জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে। অভিযোগের বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত খোকন উদ্দিনকে একাধিকবার কল করেও পাওয়া যায়নি।

বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট হাতিয়া উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক সহদেব রায় বলেন, ‘হিন্দু সংখ্যালঘুদের অসহায়ত্বের সুযোগ নিয়ে কেউ নির্যাতন নিপীড়ন চালালে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। এই ঘটনার সুষ্ঠু সমাধান না হলে, আমরা আন্দোলন গড়ে তুলবো।’
এ বিষয়ে জানতে চাইলে হাতিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ রেজাউল করিম জানান, ‘গত দুইদিন হলো আমার সদ্য সাবেক কর্মস্থল হাতিয়া উপজেলা থেকে বিদায় নিয়েছি। বিদায়ের আগে লিখিত অভিযোগটি আমার হাতে এসেছিল। বিষয়টির সমাধানের জন্য সোনাদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের আওতাধীন গ্রাম আদালতকে নির্দেশ দিয়েছি।’

সর্বশেষ আপডেট: ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০১:০৬
সামান্তা জোয়ার্দার
ফিচার প্রতিবেদক

পাঠকের মন্তব্য

ফেসবুকে একুশ শতক

সর্বশেষ আপডেট

বিনোদন