রোহিঙ্গা শিশুদের আঁকা চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন

দ্যা আর্থ সোসাইটির উদ্যোগে গত ৪ জানুয়ারি ঢাকার ধানমন্ডির এডওয়ার্ড এম কেনেডি (ইএমকে) সেন্টারে কক্সবাজারের বিভিন্ন রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অস্থায়ীভাবে বসবাসরত রোহিঙ্গা শিশুদের হাতে আঁকা মোট ২১ টি চিত্র নিয়ে একটি আলোচনা অনুষ্ঠান এবং চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করা হয়। চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধনের পাশাপাশি বাংলাদেশের দ্যা আর্থ সোসাইটি, ডেনমার্কের ‘এফজিইউ, ইয়ুথ অ্যাকশন, ইন্টারকলেজ এবং ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ও ইরাসমাস প্লাস এসকল প্রতিষ্ঠানের সমন্বয়ে গঠিত গ্রোয়িং টুগেদার ক্যাম্পেইন এর ঢাকাপর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানের অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউএনডিপি এর বাংলাদেশের পিটিআইবি প্রকল্পের প্রকল্প কর্মকর্তা ফয়সাল বিন মজিদ এবং রেবেকা সুলতানা, সেন্টার ফর রিসার্চ ইনফরমেশন (সিআরআই) - এর সিনিয়র অ্যানালিস্ট সৈয়দ মফিজ কামাল অনিক এবং দৈনিক প্রথম আলোর সাপ্তাহিক সাময়িকী প্রতিচিন্তার সহকারী সম্পাদক খলিলউল্লাহ, দ্যা আর্থ সোসাইটির কো- ফাউন্ডার সাদেকুল আরেফিন ও সাকিলা সাত্তার এবং নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ মামুন মিয়া সহ বিভিন্ন সেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান থেকে আগত প্রতিনিধিবৃন্দ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা।

অনুষ্ঠানের মূল আকর্ষণের মধ্যে ছিলো গত নভেম্বরে ডেনমার্ক ও বাংলাদেশের মোট ৫৩ জন অংশগ্রহণকারী নিয়ে অনুষ্ঠিত হওয়া ইয়ুথ এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামের আলোকে দ্যা আর্থ সোসাইটির পক্ষ থেকে প্রোগ্রামে অংশগ্রহণকারীদের অভিজ্ঞতার বর্ণনা করেন ঢাকা থেকে অংশগ্রহণকারী আরিফ আল আমিন, ওবায়েদুল্লাহ আল ইমন এবং দ্যা আর্থ সোসাইটির গেøাবাল ভলেনটিয়ার কারেন মেরি। ইয়ুথ এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামের কক্সবাজার থেকে অংশগ্রহণকারীরা রোহিঙ্গা শিশুদের আঁকা চিত্র প্রদর্শনীর চিত্র এবং স্টোরি সংগ্রহে সহযোগিতা করেন। রোহিঙ্গাদের উপর ঘটে যাওয়া অত্যাচারের কাহিনী নিয়ে মাইম শো উপস্থাপন করেন মীর লোকমান।

রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে ‘গ্রোয়িং টুগেদার ক্যাম্পেইন’ এর শুভেচ্ছা বক্তব্যে দ্যা আর্থ সোসাইটির নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ মামুন মিয়া বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুটি এখন আর বাংলাদেশের ইস্যু নয় এটি একটি গ্লোবাল ইস্যু। এই গ্লোবাল ইস্যু নিয়ে তরুণ সমাজের কাজ করতে হবে পাশাপাশি শুধুমাত্র বাংলাদেশের তরুণদের নয় বিশে^র সকল তরুণদের কাজ করতে হবে। তরুণরাই পারে রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে বিশ্বব্যাপী ক্যাম্পেইন করতে যার মাধ্যমে সচেতনতা তৈরি করে সমস্যার সমাধান করতে।
দৈনিক প্রথম আলোর সাপ্তাহিক সাময়িকী প্রতিচিন্তার সহকারী সম্পাদক খলিলউল্লাহ সংবাদ মাধ্যমের গুরুত্ব দিয়ে বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে বিশ্বব্যাপী ক্যাম্পেইন এবং সমাধান করতে আর্ন্তজাতিক সংগঠন গুলোকে কাজ করতে হবে এবং বাংলাদেশের সংবাদ মাধ্যমসহ আর্ন্তজাতিক সংবাদ মাধ্যমেকেও দায়িত্ব নিয়ে সঠিক তথ্য বিশ^ব্যাপী ছড়িয়ে দিতে হবে।

দ্যা আর্থ সোসাইটির কো- ফাউন্ডার সাদেকুল আরেফিন রোহিঙ্গা ইস্যু সমাধান করতে বিশ্বের সকল তরুণদের ভয়েস রেইস করে এক সাথে কাজ করার আহবান জানান।

সেন্টার ফর রিসার্চ ইনফরমেশন (সিআরআই)‘রসিনিয়র অ্যানালিস্ট সৈয়দ মফিজ কামাল অনিক বলেন বাংলাদেশ সরকার মায়ানমার থেকে বাংলাদেশে আগত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠিকে সকল প্রকার সাহায্য সহযোগিতা করছে। এই সংকট সমাধানের জন্য আর্ন্তজাতিক কমিউনিটিকে এগিয়ে আসতে হবে এর পাশাপাশি এই সংকটের সঠিক তথ্য সকলকে জানতে হবে।

ইউএনডিপি এর বাংলাদেশের পিটিআইবি প্রকল্পের প্রকল্প কর্মকর্তা ফয়সাল বিন মজিদ দ্যা আর্থ সোসাইটির এই উদ্যোগ এর জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন ইয়ুথদের মধ্যে রিজিওনাল নেটওর্য়াক গড়ে তুলে বৈশ্বিক সমস্যা সমাধান করতে হবে।

ইউএনডিপি এর বাংলাদেশের পিটিআইবি প্রকল্পের প্রকল্প কর্মকর্তা রেবেকা সুলতানা বলেন, বাংলাদেশের কালচারাল ডাইর্ভাসিটি নিয়ে ইউএনডিপি ইয়ুথ এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামের পরিকল্পনা গ্রহন করেছে যার মাধ্যমে বাংলাদেশের ইয়ুথদের মধ্যে কালচারাল জ্ঞানের বিকাশ তরান্বিত হবে আশা ব্যাক্ত করেন।

দ্যা আর্থ সোসাইটির কো- ফাউন্ডার সাকিলা সাত্তার এই চিত্র প্রদর্শনীর এবং আলোচনা অনুষ্ঠানে আগত অতিথিদের বিশেষভাবে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এর পাশাপাশি আয়োজনে যারা সহযোগিতা করেছেন বিশেষ করে ইএমকে সেন্টার, ইয়ুথ এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামের ঢাকা এবং কক্সবাজারের অংশগ্রহনকারী এবং গ্রোয়িং টুগেদার ক্যাম্পেইন এর সাফল্যমন্ডিত করতে সহযোগিতা করেছেন তাঁদেও সবাইকে ধন্যবাদ দিয়ে আলোচনা শেষ করেন।

পরে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের একটি ব্যান্ড দল সংঙ্গীত পরিবেশন করেন। অনুষ্ঠান শেষে ফিতা কেটে আনুষ্ঠানিকভাবে চিত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন করা হয়। সপ্তাহব্যাপী চলা এ চিত্র প্রদর্শনী দর্শনার্থীদের জন্য প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা থাকবে।

সর্বশেষ আপডেট: ৯ জানুয়ারী ২০২০, ১১:২৫
নিজস্ব প্রতিবেদক

ফেসবুকে একুশ শতক

সর্বশেষ আপডেট

বিনোদন